করোনাভাইরাস রোধে করনীয় – Preventive measures for Coronavirus

Share on facebook
Share on whatsapp
Share on twitter
Share on linkedin
Share on email
Share on print
Share on facebook
Share on whatsapp
Share on twitter
Share on linkedin
Share on email
Share on print
Share on facebook
Share on whatsapp
Share on twitter
Share on linkedin
Share on email
Share on print
Share on facebook
Share on whatsapp
Share on twitter
Share on linkedin
Share on email
Share on print

IELTS - ৳2,999 only

Boost up your IELTS Score and get upto 3 yrs Membership, Unlimited Mock Tests, FREE Practice Classes, Digital Classroom with Projector, British Curriculum and much more.

এখন পর্যন্ত করোনাভাইরাস বা COVID-19 এর কোনো প্রতিষেধক আবিষ্কার করা সম্ভব হয়নি। এই ভাইরাস থেকে রক্ষা পাওয়ার উৎকৃষ্ট উপায় হলো আক্রান্ত ব্যক্তি বা বস্তু থেকে দূরে থাকা। মূলত এই ভাইরাসটি আক্রান্ত ব্যক্তির সংস্পর্শ থেকে বা হাঁচি–কাশির মাধ্যমে অন্যদের মধ্যে ছড়িয়ে পরে।

নিজেকে সুরক্ষিত রাখতে যা যা করনীয়

হাত পরিষ্কার রাখুন

– বাথরুম ব্যবহারের পরে, খাওয়ার আগে ও পরে, হাঁচি বা কাশির পরে এবং বাইরে থেকে ঘরে প্রবেশ করার পরে দুই হাত সাবান দিয়ে কমপক্ষে ২০ সেকেন্ড পর্যন্ত ভালো করে ধুয়ে নিন।
– যদি হাতের কাছে সাবান ও পানি না থাকে, সেক্ষেত্রে ৬০% বা অধিক এলকোহলযুক্ত হ্যান্ড স্যানিটাইজার ব্যবহার করতে হবে। হাতের তালুতে সামান্য পরিমাণ হ্যান্ড স্যানিটাইজার নিয়ে তা দিয়ে দুহাত ভালো ভাবে পরিষ্কার করুন।
– অপরিচ্ছন্ন হাত দিয়ে চোখ, নাক ও মুখ স্পর্শ করা থেকে বিরত থাকুন।

সংস্পর্শ থেকে বিরত থাকুন

– অসুস্থ কোনো ব্যক্তির সংস্পর্শ থেকে বিরত থাকুন।
– নিজস্ব এলাকায় যদি করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পরে সেক্ষেত্রে একে অপরের মধ্যে দূরত্ব বজিয়ে রাখুন।
করমর্দন বা কোলাকুলি থেকে যতটা সম্ভব বিরত থাকুন।

অপরকে সুরক্ষিত রাখতে যা যা করনীয়

অসুস্থ হলে ঘরে থাকুন

– যারা COVID-19 দ্বারা আক্রান্ত হয়ে মৃদু অসুস্থ আছেন তাদের ঘরের বাইরে যাওয়া থেকে বিরত থাকতে হবে। শুধুমাত্র জরুরি চিকিৎসা সেবা গ্রহণের জন্য তারা হাসপাতালে যেতে পারেন।
– জনসমাগম থেকে বিরত থাকতে হবে।
– সাধারণ যাত্রিপরিবহণ ব্যবহার করা থেকে বিরত থাকতে হবে।
– পোষা প্রাণীদের থেকেও নিজেকে দূরে সরিয়ে রাখতে হবে।

হাঁচি-কাশির সময় নাক-মুখ ধেকে রাখুন

– হাঁচি বা কাশি দেয়ার সময় নাক ও মুখ টিস্যু দিয়ে অথবা কনুইয়ের ভাঁজে ভালোভাবে ঢেকে রাখতে হবে।
– ব্যবহৃত টিস্যু ডাস্টবিনে ফেলে দিন।
– তৎক্ষণাৎ সাবান ও পানি অথবা হ্যান্ড স্যানিটাইজার দিয়ে হাত পরিস্কার করে ফেলুন।

ফেইসমাস্ক ব্যবহার করুন

যদি আপনি অসুস্থ হন সেক্ষেত্রে আপনাকে ফেইসমাস্ক ব্যবহার করতে হবে। যদি কোনো কারণে ফেইসমাস্ক ব্যবহার করা সম্ভব না হয় (যেমনঃ শ্বাসকষ্ট) তাহলে যতদূর সম্ভব নিজের হাঁচি-কাশি ঢেকে রাখার চেষ্টা করুন। এক্ষেত্রে পরিবারের সদস্যদের এবং যারা সেবার কাজে নিয়োজিত আছে তাদের আপনার ঘরে ঢোকার সময় ফেইসমাস্ক পড়তে হবে।

যদি আপনি অসুস্থ না হন তাহলে আপনাকে ফেইসমাস্ক পড়তে হবে না। কিন্তু আপনার পরিবারের কেউ যদি অসুস্থ হন অথবা আপনি কারও দেখাশোনা করছেন এবং সেই আক্রান্ত ব্যক্তিটি ফেইসমাস্ক পড়তে অক্ষম সেক্ষেত্রে আপানাকে ফেইসমাস্ক ব্যবহার করতে হবে।

নিত্যপ্রয়োজনীয় সামগ্রী জীবাণুমুক্ত রাখুন

– দৈনন্দিন কাজে বা প্রয়োজনে ব্যবহৃত সকল সামগ্রী বা পৃষ্ঠতল, যেমনঃ টেবিল, চেয়ার, দরজার হাতল, সুইচ, মোবাইল ফোন, কম্পিউটার, ল্যাপটপ, কিবোর্ড, চাবি, টয়লেট, সিঙ্ক, বেসিন ইত্যাদি পরিষ্কার এবং জীবাণুমুক্ত রাখতে হবে।

– কোনো কিছুর পৃষ্ঠতল অপরিচ্ছন্ন থাকলে তা প্রথমে সাবান ও পানি দিয়ে পরিষ্কার করতে হবে। তারপর ব্লিচিং পাউডার অথবা এলকোহল দ্রবণ দিয়ে জীবাণুমুক্ত করতে হবে।

For detailed info please contact:

IELTS - ৳2,999 only

Boost up your IELTS Score and get upto 3 yrs Membership, Unlimited Mock Tests, FREE Practice Classes, Digital Classroom with Projector, British Curriculum and much more.
Chinmoy Ghosh

Chinmoy Ghosh

Founder CEO & English Language Trainer at ABC International 360. Completed MBA (Marketing) and BEng (Electrical & Electronics Engineering) from London, United Kingdom.

YOU MAY ALSO BE INTERESTED IN

Want to Learn English or Study Abroad?

Just fill in your details and we will get back to you

Search for 1000s of Universities & Colleges

Type the name or use the filters & see the magic...

error: Content is protected !!